10345734_710264422397391_1437074938155036259_n

ফখরুদ্দিন মেহেদী, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশের ই-কমার্স উদ্যোক্তাদের একই ছাতার নিচে নিয়ে আসতে নতুন একটি সংগঠন গঠন করা হয়েছে। এ খাতের ব্যবসায়ীদের নিয়ে প্রথমবারের মতো গঠিত এ সংগঠনের নাম রাখা হয়েছে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)।

একটি এডহক কমিটি গঠনের মাধ্যমে সম্প্রতি ই-বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত উদোক্তা ও ব্যবসায়ীদের নিয়ে এ সংগঠন আত্মপ্রকাশ করেছে। নয় জনের এ কার্যনির্বাহী কমিটি সম্প্রতি ঘোষণা করা হয়েছে। এডহক কমিটি ছাড়াও ই-ক্যাবের ১২টি স্ট্যান্ডিং কমিটি করা হয়েছে।

কমিটি গঠনের পর ই-ক্যাব সদস্যরা গত কয়েকদিনে কমনওয়েলথ টেলিকমিউনিকেশন্স ওরগানাইজেশন (সিটিও) ফোরাম ও পাবলিক ইনটারেস্ট রেজিস্ট্রি (পিআইআর) নেতাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেছে।
প্রাথমিকভাবে সংগঠনের সঙ্গে ৩৫ জন উদোক্তা ও ব্যবসায়ী যোগ দিয়েছেন। তবে দেশের বেশ কয়েকটি বড় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান এখনও এতে যোগ দেয়নি।

নতুন গঠিত কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন ইকমবিডিনেটের সম্পাদক রাজীব আহমেদ এবং কম্পিউটার জগতের প্রধান নির্বাহী মো: আব্দুল ওয়াহেদ তমাল হয়েছেন সাধারণ সম্পাদক।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, সহ সভাপতি- সামহয়্যার ইন ব্লগের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপক সহ সভাপতি সায়েদা গুলশান ফেরদৌস, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক- আইমেশ লিমিটেড ও ই-সুফিয়ানার প্রতিষ্টাতা ও পরিচালক মীর শাহেদ আলী, কোষাধক্ষ্য- অর্পন কমিউনিকেশনের চেয়ারম্যান ও কম্পিউটার জগতের সহযোগী সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল হক ও ডিরেক্টর (কমিউনিকেশন)-আপনজন ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী আসিফ আহনাফ।

এ ছাড়া তিনটি ডিরেক্টর পদে রয়েছেন স্পাইস ডিজিটাল লিমিটেডের কান্ট্রি ম্যানেজার রেজওয়ানুল হক জামিল, ফার্স্ট ক্যাশের প্রধান নির্বাহী শেজান শাসম এবং রিস্ক ইকো লজিসটিক্সের ব্যবস্থাপক সুমন হাওলাদার।

নতুন অ্যাসোসিয়েশন গঠনের বিষয়ে নবনির্বাচিত সভাপতি রাজীব বলেন, দেশের ই-কমার্স সাইটগুলো এখন নানাবিধ সমস্যার মধ্যে রয়েছে। এগুলোর মধ্যে অনলাইন শপ, ই-সার্ভিস, ডেলিভারি সার্ভিস, ই-কমার্স পলিসি অ্যান্ড গাইডলাইন, সচেতনতা ও প্রশিক্ষণ, ই-নিরাপত্তা এবং ই-পেমেন্ট অন্যতম। এসব সমস্যা সমাধানে কাজ করবে নতুন সংগঠন।

এ সংগঠক বলেন, অন্যান্য দেশে ই-কমার্সের বাজার অনেক বড় হলেও দেশের বাজার এখনও অনেক ছোট। ই-কমার্স বাজারকে আরও বিস্তৃত করতে ভূমিকা রাখবে তাদের সংগঠন।

একই সঙ্গে এখন থেকে ই-ক্যাব উদ্যোক্তাদের সকল ধরনের সহায়তা প্রদান করবে। সব ধরনের ই-কমার্স উদ্যোক্তাদের জন্য সংগঠনের দ্বার খোলা থাকবে বলেও জানান নতুন সভাপতি।

নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক তমাল বলেন, দেশের ৬৪টি জেলায় ই- কমার্সকে জনপ্রিয় করতে কাজ করবে নতুন এ সংগঠন। সবাই যেন নতুন এ কেনাবেচার সুফল সুফল ভোগ করতে পারে তার চেষ্টা থাকবে।

এ ছাড়া ই-কমার্সের ট্রাস্ট্রেড সাইটগুলোকেও চিহ্নিত করতে কাজ করবে ই-ক্যাব উল্লেখ করে তরুন এ সংগঠক বলেন, অনেক ভুইফোর সাইটের কারণে অনেকেই প্রতারণার শিকার হয়েছেন এবং ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতিতে ক্ষতির মুখে পড়েছেন। একটি নীতিমালা প্রণয়ন করে প্রতারকদের শাস্তি মূলক ব্যবস্থা করার কথাও জানান তিনি।

এ ছাড়া বিদেশে বাজার বাড়াতে বিদেশি গ্রাহকদের সঙ্গে দেশের ই-কমার্স সাইটগুলোর সংযোগ ঘটাতেও কাজ করবে সংগঠনটি বলে জানান সাধারণ সম্পাদক।